1. admin@amadertangail24.com : md Hasanuzzaman khan : The Bengali Online Newspaper in Tangail News Tangail
  2. aminulislamkobi95@gmail.com : Aminul islam kobi : Aminul islam kobi
  3. anowar183617@gmail.com : Anowar pasha : Anowar pasha
  4. smariful81@gmail.com : ArifulIslam : Ariful Islam
  5. arnobalamin1@gmail.com : arnob alamin : arnob alamin
  6. dms09bd@yahoo.com : dm.shamimsumon : dm shamim sumon
  7. kplithy@gmail.com : Lithy : Khorshida Parvin Lithy
  8. hasankhan0190@gmail.com : md hasanuzzaman : md hasanuzzaman Khan
  9. monirhasantng@gmail.com : MD. MONIR HASAN : MD. MONIR HASAN
  10. muslimuddin@gmail.com : MuslimUddin Ahmed : MuslimUddin Ahmed
  11. sayonsd4@gmail.com : Sahadev Sutradhar Sayon : Sahadev Sutradhar Sayon
  12. sheful05@gmail.com : sheful : Habibullah Sheful
ইভ্যালি অফিসে অ্যামাজন প্রতিনিধি, বিনিয়োগ আগ্রহ - Amader Tangail 24
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১১:০২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদঃ-
বাঙ্গালী সংস্কৃতি জাগ্রত হলে অসাম্প্রদায়িক চেতনা জাগ্রত হবে নাগরপুরে মঙ্গল শোভাযাত্রা উদ্বোধনের সময় বানিজ্য প্রতিমন্ত্রী বাসাইলে পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত আমাদের মূল লক্ষ্যই হলো হস্ত ও কুটির শিল্পকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া- বানিজ্য প্রতিমন্ত্রী সখিপুরে একই মাতৃগর্ভে ৬ সন্তান সখিপুর উপজেলা হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগীদের ঈদ আনন্দ সেবা সংঘের উদ্যোগে ঈদ সমগ্রী বিতরণ নাগরপুরে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হজ্ব এজেন্সির নামে টাকা তুলে আত্মসাৎ অভিযোগে দালাল আটক বাসাইলে এসএসসি ২০১৬ ব্যাচের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত বাসাইলে ইফার উদ্যোগে সরকারি যাকাত ফান্ড থেকে যাকাত বিতরণ কালিহাতী রিপোর্টার্স ইউনিটির ইফতার ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত সখিপুরে বিএনপির আহবায়ক কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত মির্জাপুরে ঈদ উপলক্ষে বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ বাসাইলে অনার্স ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ সখিপুরে সুরীরচালা আঃ হামিদ চৌধুরী উঃবিঃ ম্যানিজিং কমিটি নির্বাচন সম্পন্ন

ইভ্যালি অফিসে অ্যামাজন প্রতিনিধি, বিনিয়োগ আগ্রহ

প্রযুক্তি ডেস্ক
  • প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২০
  • ৫৩৭ ভিউ

ইভ্যালি কার্যালয় ঘুরে গেছেন অ্যামাজন প্রতিনিধি।

মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) দীর্ঘ সময় ধানমণ্ডিস্থ ইভ্যালির কার্যালয় পরিদর্শন এবং বৈঠক করেছেন অ্যামাজনের ওই প্রতিনিধি।

ইভ্যালির এমডি ও সিইও মোহাম্মদ রাসেল এর সঙ্গে ওই বৈঠক করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলের অ্যামাজন সদর দপ্তরের কর্মকর্তা রুদমিলা আর.। রুদমিলা অ্যামাজনের কর্পোরেট বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার।

তবে এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি মোহাম্মদ রাসেল। ‘আপাতত এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে পারছি না’ যোগাযোগ করা হলে এমনটাই তিনি বলছিলেন।

নিশ্চিত তথ্য রয়েছে যে, অ্যামাজন কর্মকর্তা ইভ্যালি পরিদর্শনে এসে কার্যালয়ে সবগুলো ইউনিট ঘুরে দেখেছেন।

ইভ্যালির গ্রাহক, পলিসি, মার্কেট শেয়ার, বিনিয়োগসহ ব্যবসায়িক ডকুমেন্টস চেয়েছে অ্যামাজন।

অ্যামাজন এখন বাংলাদেশের মার্কেট স্টাডি করে দেখছে, বিনিয়োগের সম্ভাব্যতা যাচাই-বাছাই করছে।

তবে শেষ পর্যন্ত অ্যামাজন ইভ্যালিতে বিনিয়োগ করবে কিনা বা বিনিয়োগ করলে সেটা কোন ফরম্যাটে হবে এসব বিষয়ে অগ্রগতি বেশ সময় সাপেক্ষই বলে বলছেন দেশের ই-কমার্স খাতের শীর্ষস্থানীয় এক উদ্যোক্তা এবং খাত বিশেষজ্ঞ-যিনি অ্যামাজনের সঙ্গে গত কয়েক বছরে বেশ কয়েক দফায় কিছু বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন।

‘দেশে নানাভাবে অ্যামাজনের পদচারণা রয়েছে। এখন পর্যন্ত ইউরোপ আমেরিকাসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে, নিজেদের ওয়্যারহাউজগুলোতে বাংলাদেশের পণ্য নিতে আগ্রহী এবং বিশেষ সুবিধা চায় অ্যামাজন। তবে সরাসরি বিনিয়োগ বা অ্যাকুজিশন প্রক্রিয়াটিতে বেশ দাপ্তরিক বিষয় রয়েছে এবং এটি বেশ সময় সাপেক্ষও। সময়ই বলে দেবে অ্যামাজন আসলে কী করতে চাইছে’ বলছিলেন তিনি।

বাংলাদেশে অ্যামাজনের কান্ট্রি অফিস হিসেবে আসা নিয়ে আলোচনা-গুঞ্জন বেশ কয়েক বছর ধরেই। ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে দেশিয় ই-কমার্স খাতের ভবিষ্যত রোডম্যাপ নিয়ে এক গোলটেবিল বৈঠকে নীতিনির্ধারণে ভূমিকা রাখা খাত সংশ্লিষ্টদের আলোচনায় অ্যামাজন শতভাগ সরাসরি বিনিয়োগ নিয়ে বাংলাদেশে আসছে এমন তথ্য আসে।

ওই বছরের শুরুতেই অ্যামাজনের শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তারা বাংলাদেশ ঘুরে যান। তখন ডিজিটাল বাংলাদেশ নিয়ে কাজ করে সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে বাংলাদেশে কার্যক্রম শুরু করতে চান- এমন মতামতের কথা বলা হয় তখন।

ওই সময়ে বাংলাদেশে সফরকালে অ্যামাজন কর্তৃপক্ষ অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই), ব্যাংকিং খাত, বিনিয়োগ সংশ্লিষ্ট সরকারের নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে বৈঠক-আলোচনা করে গেছেন বলে বলা হয়। তখন এটুআইয়ের সঙ্গে বৈঠকে অ্যামাজন সরকারের একশপ ই-কমার্স মার্কেটপ্লেসের অবকাঠামোগত সুবিধা চেয়েছিল আলোচনায় উল্লেখিত হয়।

কিন্তু ২০১৯ সালের ১৭ জুলাই  তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সঙ্গে এক বৈঠকে ইউরোপ আমেরিকাসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে, নিজেদের ওয়্যারহাউজগুলোতে বাংলাদেশের পণ্য নিতে বিশেষ সুবিধা চায় অ্যামাজন।

যাতে স্থানীয় বিক্রেতা ও উদ্যোক্তারা সহজে অ্যামাজনের বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্মে পণ্য বিক্রি করতে পারে।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ের আইসিটি টাওয়ারে ওই বৈঠকে অংশ নেন আমাজনের এক প্রতিনিধি দল। বৈঠকে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের পক্ষে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এবং অ্যামাজনের পক্ষে ছিলেন কোম্পানিটির ইন্টারন্যাশনাল এক্সপানশন বিভাগের ক্যাটাগরি ম্যানেজার গগন দিপ সাগর।

ওই বছরের আগস্টে ওয়ালটনের সঙ্গে চুক্তি করে অ্যামাজন। এতে প্রাথমিকভাবে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ওয়ালটনের ল্যাপটপ, কম্পিউটার, মোবাইল ফোন এবং হোম অ্যাপ্লায়েন্স বিক্রি হবে।

এছাড়া বাংলাদেশে আগে হতেই অ‍্যামাজনের অনেক বিক্রেতা রয়েছেন। যদিও এই সংখ্যা কতো তা জানা যায়নি। তবে এসব বিক্রেতার বেশিরভাগ বাংলাদেশ হতে অ‍্যামাজনে পণ‍্য না পাঠিয়ে চায়না বা অন‍্য কোনো দেশ হতে পণ্য কিনে সরাসরি ওখান হতেই অ্যামাজনের কাছে পাঠিয়ে দেন।

কোনো কোনো বিক্রেতা যারা বাংলাদেশ হতে পণ্য পাঠান তারা সংখ্যায় খুব কম। কারণ এখানে এলসি খোলা, বন্ডেড ওয়্যারহাউজ, এনবিআর, কাস্টমসসহ ব্যাপক প্রক্রিয়ার মধ্যে যেতে হয় ওই বিক্রেতাকে।

আবার এই বিক্রেতাদের বিক্রয়সংক্রান্ত সেবাও দিয়ে থাকেন কেউ কেউ। এছাড়া  অ‍্যামাজন বাংলাদেশের সেলারদের নিয়ে দেশে অনুষ্ঠানও করেছে। খবর টেকশহর।

নিউজটি সোস্যালমিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2021
Theme Customized BY LatestNews