1. admin@amadertangail24.com : md Hasanuzzaman khan : The Bengali Online Newspaper in Tangail News Tangail
  2. aminulislamkobi95@gmail.com : Aminul islam kobi : Aminul islam kobi
  3. anowar183617@gmail.com : Anowar pasha : Anowar pasha
  4. smariful81@gmail.com : ArifulIslam : Ariful Islam
  5. arnobalamin1@gmail.com : arnob alamin : arnob alamin
  6. dms09bd@yahoo.com : dm.shamimsumon : dm shamim sumon
  7. kplithy@gmail.com : Lithy : Khorshida Parvin Lithy
  8. hasankhan0190@gmail.com : md hasanuzzaman : md hasanuzzaman Khan
  9. monirhasantng@gmail.com : MD. MONIR HASAN : MD. MONIR HASAN
  10. muslimuddin@gmail.com : MuslimUddin Ahmed : MuslimUddin Ahmed
  11. sayonsd4@gmail.com : Sahadev Sutradhar Sayon : Sahadev Sutradhar Sayon
  12. sheful05@gmail.com : sheful : Habibullah Sheful
ঈদের পর চড়া সবজির বাজার - Amader Tangail 24
বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ১০:২৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদঃ-
উল্লাপাড়ায় কোটা আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি  সখিপুরে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন! বাসাইলে কোটা সংস্কারের দাবিতে সড়ক অবরোধ  উল্লাপাড়ায় কোটা আন্দোলনকারীদের রাজপথে বিক্ষোভ মিছিল  বাসাইলে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন বলগেট মালিক কে ৫০হাজার টাকা জরিমানা গোপালপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ সভা গোপালপুরে নিষিদ্ধ জাল পুড়িয়ে ধ্বংস বাসাইলে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ও জিও ব্যাগ ফেলার উদ্বোধন  নানা দাবি নিয়ে ১০ম দিনের মতো সিরাজগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-১’র কর্মচারিদের কর্মবিরতি গোপালপুরে বন্যায় পানীয় জলের সংকট, তবে ক্ষতিগ্রস্তরা পাচ্ছে পর্যাপ্ত ত্রাণ সখিপুরের মহানন্দপুর বিজয় স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের কর্মচারী আঃ রাজ্জাকের স্মরণসভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত মির্জাপুরে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ বাসাইলে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ বিতরণ ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা বাসাইলে শ্রীশ্রী জগন্নাথদেবে রথযাত্রা উৎসব শুরু

ঈদের পর চড়া সবজির বাজার

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৪ আগস্ট, ২০২০
  • ৪৯৭ ভিউ
ফাইল ছবি

ঢাকা: দেশের বিভিন্ন জেলায় চলমান বন্যা আর ঈদের পর বাড়তি মালামাল না আসার অজুহাতে দাম বেড়েছে বিভিন্ন সবজির। বাজারগুলোতে আকার ও সবজিভেদে পাঁচ থেকে ৪০ টাকা পর্যন্ত বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে বিভিন্ন সবজি।

সবচেয়ে বেশি বেড়েছে বেগুন, করলা ও উস্তার দাম। বাড়তি দাম চাওয়া হচ্ছে শাকেরও। অন্যদিকে শাকসবজির সঙ্গে দাম বেড়ে গেছে কাঁচা মরিচেরও। ঈদের আগে কাঁচা মরিচ কেজিতে ১৬০ থেকে ১৮০ টাকায় বিক্রি হলেও তা ফের ২০০ এর ঘরে গিয়ে ঠেকেছে। অপরিবর্তিত আছে মসলাজতীয় পণ্য আদা, রসুন, পেঁয়াজ, চাল, ডাল ও ভোজ্যতেলের দাম।

এদিকে সবজির উচ্চমূল্য নিয়ে মিশ্র-প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে। বিক্রেতারা বলছেন, বন্যার পাশাপাশি ঈদের পর বাজারগুলোতে সংকট থাকায় বাড়তি দাম নেওয়া হচ্ছে সবজির। আর ক্রেতারা বলছেন, যেকোনো ইস্যু পেলেই বিক্রেতারা পণ্যের দাম বাড়িয়ে দেন।

মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) রাজধানীর রামপুরা, মগবাজার, মালিবাগ রেলগেট বাজার, খিলগাঁও এবং যাত্রাবাড়ী খুচরা বাজারগুলো ঘুরে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

এসব বাজারগুলোতে কেজিতে ৪০ টাকা বেড়ে এখন করলা ও উস্তা বিক্রি হচ্ছে ১১০ থেকে ১২০ টাকা কেজিদরে, লম্বা বেগুন ১০০ থেকে ১২০ টাকা, গোল বেগুন ৮০ থেকে ১শ টাকা কেজিদরে। তবে এসব বাজার এলাকার অস্থায়ী বাজার (ফুটপাত ও গলিপথ) করলা-উস্তা ১শ টাকা, বেগুন ৮০ থেকে ৯০ টাকার মধ্যে বিক্রি করতে দেখা গেছে।

কেজিতে পাঁচ থেকে ১৫ টাকা পর্যন্ত বেড়ে এখন প্রতিকেজি গাজর ৯০ থেকে ১শ টাকা, প্রতিকেজি ঝিঙা-চিচিঙা-ধন্দুল ৫০ থেকে ৭০ টাকা, কচুরলতি ৬০ থেকে ৭০ টাকা, টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা, কাকরোল ৭০ থেকে ৮০ টাকা, বরবটি বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৭০ টাকা, কচুরছড়া ৬০ থেকে ৭০ টাকা, ঢেঁড়শ বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা, পেঁপে ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজিদরে বিক্রি করতে দেখা গেছে।

এছাড়া হালিতে ১০ টাকা বেড়ে প্রতিহালি কলা বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা।  হালিতে পাঁচ টাকা বেড়ে প্রতিহালি লেবু বিক্রি হচ্ছে ১৫ থেকে ২০ টাকায়। দাম বেড়ে প্রতি পিস লাউ বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকা, চালকুমড়া ৫০ টাকায়। অপরিবর্তিত আছে আলু, মিষ্টি কুমড়া, ধনিয়াপাতা, পুদিনাপাতার দাম। কেজিতে ২০ টাকা বেড়ে এখন কাঁচামরিচ প্রতিকেজি (দেশি) ২০০ টাকা, আমদানি ১৬০ টাকা কেজিদরে বিক্রি হচ্ছে।

দাম বেড়েছে শাকের বাজারেও। এখন এসব বাজারে প্রতি আঁটি লালশাকের দাম চাওয়া হচ্ছে ২০ টাকা, মূলা ও কলমিশাক ২০ টাকা, লাউ ও কুমড়াশাক ৪০ টাকা, পুঁইশাক ২০ থেকে ৩০ টাকা।

আগের দাম রয়েছে আদা, রসুন ও পেয়াজ বাজারে। এসব বাজারে প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে (মানভেদে) ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, প্রতিকেজি রসুন বিক্রি হচ্ছে ১শ থেকে ১২০ টাকা কেজিদরে, প্রতিকেজি আদা বিক্রি হচ্ছে (মানভেদে) ১২০ থেকে ১৩০ টাকা কেজিদরে।   অপরিবর্তিত রয়েছে চাল, ডাল ও ভোজ্যতেলের দাম। এসব প্রতিকেজি মিনিকেট (নতুন) চাল বিক্রি হচ্ছে ৫২ থেকে ৫৪ টাকা কেজি, মিনিকেট পুরান ৫৫ টাকা, বাসমতী ৫৮ থেকে ৬০ টাকা, গুটিচাল বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪২ টাকা, পায়জাম চাল বিক্রি হচ্ছে ৪৪ টাকা, স্বর্ণ ৪০ থেকে ৪২ টাকা কেজিদরে, আঠাশ চাল বিক্রি হচ্ছে ৪৪ থেকে ৪৫ টাকা কেজিদরে, আতপ চাল ৫৫ থেকে ৬০ টাকা, এক সেদ্ধ চাল বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪২ টাকা, প্রতিকেজি পোলাওয়ের চাল বিক্রি হচ্ছে ৯৫ থেকে ১শ টাকা কেজিদরে।

প্রতিকেজি ডাবলী ডাল বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকা, অ্যাঙ্কার ডাল ৫০ টাকা, প্রতিকেজি দেশি মসুরডাল বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা, মসুর (মোটা) ৮০ টাকা কেজিদরে। খোলা সয়াবিন (লাল) এখন বিক্রি হচ্ছে ৯৫ থেকে ১০৫ টাকা লিটার, খোলা (সাদা) সয়াবিন বিক্রি হচ্ছে ১শ টাকা লিটার। খোলা সরিষার তেল বিক্রি হচ্ছে ২শ টাকা লিটার।

নাজমুল হোসেন নামে মালিবাগ বাজারের এক বিক্রেতা বাংলানিউজকে বলেন, কাঁচামাল আমদানি নির্ভর। এখন বন্যার পাশাপাশি ঈদের কারণে বাজারে মালামাল কম আসছে। এতে দাম বেড়েছে সবজির। তবে পণ্যের সরবরাহ বাড়লে দাম কম আসবে বলেও জানান তিনি।

তবে এ বিক্রেতার সঙ্গে একমত নন এ বাজারের ক্রেতা রাসেল। তিনি বলেন, কোনো ইস্যু পেলেই বিক্রেতারা পণ্যের দাম দ্বিগুণ বাড়িয়ে দেন। এখন বাজারের সবজির সরবরাহ কমে গেছে। একইসঙ্গে ক্রেতাও কমেছে এতে দাম বাড়ার কোনো কারণ দেখছি না।

সূত্রঃ বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নিউজটি সোস্যালমিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2021
Theme Customized BY LatestNews