1. admin@amadertangail24.com : md Hasanuzzaman khan : The Bengali Online Newspaper in Tangail News Tangail
  2. aminulislamkobi95@gmail.com : Aminul islam kobi : Aminul islam kobi
  3. anowar183617@gmail.com : Anowar pasha : Anowar pasha
  4. smariful81@gmail.com : ArifulIslam : Ariful Islam
  5. arnobalamin1@gmail.com : arnob alamin : arnob alamin
  6. dms09bd@yahoo.com : dm.shamimsumon : dm shamim sumon
  7. kplithy@gmail.com : Lithy : Khorshida Parvin Lithy
  8. hasankhan0190@gmail.com : md hasanuzzaman : md hasanuzzaman Khan
  9. monirhasantng@gmail.com : MD. MONIR HASAN : MD. MONIR HASAN
  10. muslimuddin@gmail.com : MuslimUddin Ahmed : MuslimUddin Ahmed
  11. sayonsd4@gmail.com : Sahadev Sutradhar Sayon : Sahadev Sutradhar Sayon
  12. sheful05@gmail.com : sheful : Habibullah Sheful
গৃহবধূ সুমীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য পরিবারের অভিযোগ ধর্ষণের পর হত্যা - Amader Tangail 24
শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৭:১৭ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদঃ-
গোপালপুরে স্বামীর নির্যাতনে স্ত্রীর মৃত্যু, স্বামী আটক বাসাইলে তামাক নিরোধ বিষয়ক মতবিনিময় সভা নাগরপুর আলিম মাদ্রাসার কেউ পাস করেনি। সখিপুরে এমপিকে আত্মার হুমকির প্রতিবাদে মানবন্ধন ও প্রতিবাদ সভা নাগরপুরে বিয়ে না দেওয়ায় অভিমানে ছেলের আত্মহত্যা গোপালপুরের পরিবহন শ্রমিকদের ডাটাবেজ বা নিবন্ধন তৈরি শুরু আজ ভয়াল ১৩ মে, টর্নেডোর আঘাত আজও ভুলেনি বাসাইলবাসী উল্লাপাড়ায় ৪ মাদ্রাসায় কোন শিক্ষার্থীই পাশ করেনি  ভূঞাপুরে আচরণ বিধি লঙ্ঘনের দায়ে দুই প্রার্থীকে জরিমানা! উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ঋণ খেলাপি দায়ে ইঞ্জিনিয়ার সোহরাব হোসেন ও সালাউদ্দিনের মনোনয়ন পত্র বাতিল সখিপুরে আ.লীগের বিরুদ্ধে আ.লীগের প্রতিবাদ সভা কালিহাতীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ৩ লাখ টাকা জরিমানা নাগরপুরে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার ঋণ করে জনগণের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করছি -ইউপি চেয়ারম্যান ভূঞাপুরে সাংবাদিকদের সাথে নবাগত নির্বাহী অফিসারের মতবিনিময়

গৃহবধূ সুমীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য পরিবারের অভিযোগ ধর্ষণের পর হত্যা

এম এম হেলাল
  • প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৯ নভেম্বর, ২০২৩
  • ২৩৬ ভিউ

 

 

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার বীরবাসিন্দা ইউনিয়নের বনবাড়ি গ্রামের গৃহবধূ সুমীর (২৮) মৃত্যু নিয়ে রহস্য যেনো কাটছেই না। মৃত্যুর ১২দিন পেরিয়ে গেলেও ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন আসেনি, পুলিশও কোন রহস্য উদ্ঘাটন করতে পারেনি। গত ২৮ অক্টোবর শনিবার সকালে রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হওয়া সুমীর মরদেহটি নিজ বাড়ির বসতঘরের মেঝেতে শুয়ানো অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। ওইদিন দুপুরেই ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি মর্গে প্রেরণ করে পুলিশ । নিহত গৃহবধূ আটাবাড়ী গ্রামের সৌদি প্রবাসী হাসমতের স্ত্রী ও বনবাড়ি গ্রামের আব্দুল কাদেরের সেঝো মেয়ে।
স্থানীয় আটাবাড়ি বাজারের দুজন পল্লী চিকিৎসক ও দুজন মুদি দোকানিসহ আরও ৮-১০জনের সাথে আলাপকালে জানা যায়, দুই বা ততোধিক ব্যক্তির ধর্ষণের কারণে তাঁর মৃত্যুর ও যৌনাঙ্গ ছিড়ে যাওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে। বাম হাতের কব্জি ভাঙা ছিলো, বাম চোখে আঘাতের ফলে রক্তাক্ত জখম হয়ে রক্ত বের হয়ে যায়। মাটি খামছে ধরলে যেমন মাটি থাকে তেমন হাতের আঙুলের নখের ভিতরে মাটি ছিলো। এসব থেকে অনুমান করা যায় মেয়েটি প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাহিরে গেলে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা কয়েকজন তাঁর পাশবিক নির্যাতন চালিয়ে মেরে ঘরের মেঝেতে ফেলে চলে যায়। যদি সে আত্মহত্যা করত তাহলে দরজা খোলা থাকবে কেন? তাঁর ব্যবহৃত ফোনটিই বা কারা নিয়ে গেলো? দুষ্কৃতিকারীরা যে সজনে গাছ দিয়ে আসা যাওয়ার সময় একটি ডালও ভেঙে ফেলে। গাছটির গোড়ায় একাধিক জুতা ও পায়ের ছাপ দেখা যায় ওইদিন সকালে।
সুরতহাল প্রতিবেদনেও উল্লেখ আছে মুখ ও ঠোঁটে দাঁতের সাহায্যে চিহ্ন বা কামড়ের দাগ আছে। ডান হাতের আঙুলের মাথায় হালকা রক্ত ছিল। যৌনাঙ্গে বীর্যু পরিলক্ষিত হলেও মলদ্বারে কোনও মল ছিলো না।
নিহত গৃহবধূর দশবছর বয়সী ছেলে সোহাগ বলেন, রাত তিনটার দিকে উঠে মাকে পাশে দেখতে না পেয়ে পাশের কক্ষে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে ধাক্কা দিই। না ওঠলে দৌড়ে নানার বাড়ি গিয়ে সবাইকে ডেকে আনি। দরজা খোলা ছিলো, পাশেই মায়ের জুতা পড়েছিল।
নিহত সুমীর চাচি রেহেনা বলেন, রাতে নাতি এসে বলার সাথে সাথে আমরা দৌড়ে গিয়ে দেখি সুমীর দেহটি ওপর করানো। মুখ ও গলা ওড়না দিয়ে বাধা। হাত পা ঝিলিঙ্গা (শক্ত) হয়ে গেছে, শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখম, হাত বাঁকা হয়ে ছিলো। বুকসহ বিভিন্ন জায়গায় খামছিয়ে ছিড়ে ফেলেছে। গলায় দাগ হয়ে ছিলো। মাটি খামছিয়ে (আকড়ে) ধরায় নখের ভিতরে মাটি ঢুকে ছিলো। ব্যবহারের দুইটি মোবাইলও পাওয়া যায়নি।
সুমীর মরদেহ ধোয়ানোর কাজে অংশ নেয়া নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক দুজন মহিলা জানান, তাঁর গোপনাঙ্গ ছেড়া ছিল। এতে মনে হয় তাঁর ওপর পাশবিক নির্যাতন হয়েছে। শরীরের ওপরের অংশে নখের আচর অন্যদের দেখিয়েছি।
বাবা আব্দুল কাদের বলেন, ‘নারী নির্যাতন কইরা আঘাত কইরা জায়গায় জায়গায় আঘাত কইরা মেয়েটারে ক্ষয় করছে’। অপমৃত্যুর মামলা কেন করলেন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘অপমৃত্যুর মামলা তো আমি করি নাই। ওহন কইয়্যা দিছি, তাঁরা দেইখাও নিছে, ‘ওহন যদি নেইখা (লিখে) থয় (রাখে) ওডাতো আর আমি চোখেও দেহিনা বলতেও পারমু না’। আইনের কাছে দ্রুত জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার ও কঠিন বিচারের দাবি জানান তিনি।
তদন্ত কর্মকর্তা ও কালিহাতী থানার উপপরিদর্শক মিন্টু চন্দ্র ঘোষ এ বিষয়ে বলেন, প্রাথমিক তদন্তে হত্যাকান্ড মনে হচ্ছে না। বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বলেন, এলাকার ৯০ শতাংশ মানুষের অভিযোগ তাঁকে মেরে ফেলা হয়েছে। এবিষয়টিও আমরা শতভাগ গুরুত্ব দিচ্ছি ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে ধর্ষণ ও গর্ভবতীর বিষয়ে সুনির্দিষ্টভাবে চিকিৎসকের মতামত চাওয়া হয়েছে।

নিউজটি সোস্যালমিডিয়াতে শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2021
Theme Customized BY LatestNews