1. admin@amadertangail24.com : md Hasanuzzaman khan : The Bengali Online Newspaper in Tangail News Tangail
  2. aminulislamkobi95@gmail.com : Aminul islam kobi : Aminul islam kobi
  3. anowar183617@gmail.com : Anowar pasha : Anowar pasha
  4. smariful81@gmail.com : ArifulIslam : Ariful Islam
  5. arnobalamin1@gmail.com : arnob alamin : arnob alamin
  6. dms09bd@yahoo.com : dm.shamimsumon : dm shamim sumon
  7. kplithy@gmail.com : Lithy : Khorshida Parvin Lithy
  8. hasankhan0190@gmail.com : md hasanuzzaman : md hasanuzzaman Khan
  9. monirhasantng@gmail.com : MD. MONIR HASAN : MD. MONIR HASAN
  10. muslimuddin@gmail.com : MuslimUddin Ahmed : MuslimUddin Ahmed
  11. sayonsd4@gmail.com : Sahadev Sutradhar Sayon : Sahadev Sutradhar Sayon
  12. sheful05@gmail.com : sheful : Habibullah Sheful
মৃত্যু বরণ করলেন প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর - Amader Tangail 24
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০৫:৫১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদঃ-
টাঙ্গাইলের ঐতিহ্যবাহী গোপালপুরে শত বছর পুরানো হাটে কুরবানীর পশু ক্রয় বিক্রয় খুশি সকলে উল্লাপাড়ায় দারিদ্র্য বিমোচন কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে দুস্থ ও অসহায়দের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ  ঘাটাইল পল্লী উদ্যোক্তা ঋণ বিতরণ  বর্ষাকালীন ব্যাডমিন্টন ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত খুদে খেলোয়াড়দের মাঝে ফুটবল বিতরণ দেলদুয়ারে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে ১জনক’কে কুপিয়ে গুরুতর জখম ভূঞাপুরে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত গুণি শিক্ষকের ১৫ তম প্রয়াণ দিবস পালন দেলদুয়ারে ভূমিসেবা সপ্তাহের সেবা প্রদান টাঙ্গাইল প্রকৃতি ক্লাবের উদ্যোগে আলোচনা সভা মিরিকপুর গঙ্গাঁচরণ তপশিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি হলেন রফিকুল ইসলাম সংগ্রাম বাসাইলে ৬ জনকে টপকিয়ে প্রথমবারেই ভাইস চেয়ারম্যান পদে বাজিমাত করলেন নতুন মুখ সাংবাদিক শহিদ চেক জালিয়াতি মামলায় উল্লাপাড়া মোমেনা আলী বিজ্ঞান স্কুলের  প্রধান শিক্ষক মজিদ গ্রেপ্তার  নাগরপুরে কোরবানি ঈদ সামনে রেখে ব্যস্ত কামার শিল্পীরা ভূঞাপুরে প্রভাতি কিন্ডারগার্টেনের পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত

মৃত্যু বরণ করলেন প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর

নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশ : শনিবার, ১৫ আগস্ট, ২০২০
  • ১৬৪৫ ভিউ

মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন স্বাধীনতা ও একুশে পদক প্রাপ্ত প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর। শনিবার (১৫ আগস্ট) সকালে রাজধানীর একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

ছবি- চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর।

তার মেয়ে মুনীর বশীর সাংবাদিকদের জানান, শনিবার সকাল ৯টা ১০ মিনিটে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। জোহর থেকে আসরের মধ্যবর্তী কোনো এক সময়ে মুর্তজা বশীরকে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে। বাবা করোনায় আক্রান্ত ছিলেন।

প্রখ্যাত চিত্রশিল্পীর মৃত্যুতে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে নেমে এসেছে শোক। অতীত কিংবা বর্তমানকে বিশ্বাস করতেন না মুর্তজা বশীর। তার বিশ্বাস ছিল ভবিষ্যতে। তিনি বলতেন মৃত্যুর পরও বেঁচে থেকে সময়কে অতিক্রম করতে পারাই জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জন। সেই অর্জনের পেছনেই হয়ত তাড়িত হয়ে একজন মুর্তজা বশীর বৃত্তাবদ্ধ হননি শুধু চিত্রশিল্পী পরিচয়ে। ভাষা সংগ্রামী মুর্তজা বশীর ছিলেন একাধারে কবি, গল্পকার, ঔপন্যাসিক। এমনকি চলচ্চিত্র অঙ্গনেও রেখেছেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।

উপমহাদেশের প্রখ্যাত ভাষাবিদ ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহর ঘরে জন্ম নেয়া ছেলেটির নাম রাখা হলো আবুল খায়ের মুর্তজা বশীর উল্লাহ। কিন্তু বাবার নামে পরিচিত হতে চায় না ছেলেটি। তাই বড় হয়ে নিজের নাম রাখলেন মুর্তজা বশীর।

যদিও বাবার মৃত্যুর পর বশীর লিখলেন, অসাধারণ এক স্মৃতিকথা। যার নাম ‘বাবা ও আমি’। ১৯৩২ সালে জন্ম নেয়া বশীর ৪৯ সালে ভর্তি হন বর্তমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটে। তবে তা ছবি আঁকার তাড়নায় নয়, কমিউনিষ্ট পার্টির নির্দেশে দলীয় একটি সেল তৈরী করতে।

আর্ট প্লেট হাতে জয়নুল আবেদীনের সাথে মুর্তজা বশীর।

যদিও জয়নুল আবেদীনের সেই ছাত্রটি পরবর্তীতে প্রথম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হয়ে বের হন। এরপর শিল্পকলায় উচ্চতর শিক্ষার জন্য চলে যান ইতালিতে। এর আগে লড়াইএ নামেন ভাষা আন্দোলনে। আঁকতে থাকেন, আন্দোলনের দুর্দান্ত সব কার্টুন এবং ফেস্টুন।

 

১৯৭৩ থেকে ৯৮, টানা ২৫ বছর শিক্ষকতা করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলায়। এরপরের ১২ বছর আঁকেন শতাধিক ছবির একটি সিরিজ। যার নাম বশীর দি উইংস।

শুধু রং তুলি নয় সাহিত্যক্ষেত্রেও রেখেছেন অবদান। চিত্রশিল্পে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ স্বাধীনতা পুরস্কার, একুশে পদকসহ বহু জাতীয়-আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন গুনি এই শিল্পী।

আমরা চোখের সামনে যা দেখতে পাই, সেটাইতো সব নয়। অন্তর্লোকে যা থাকে তাইতো সারবস্তু। একজন বশীর তার তৃতীয় নয়ন দিয়ে সেই অদেখাকে দেখতে পান, তিনি আলোকিত করেন নিজেকে দেশকে আর ভবিষ্যত প্রজন্মকে। তাঁকে অতল শ্রদ্ধা।

নিউজটি সোস্যালমিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2021
Theme Customized BY LatestNews