1. admin@amadertangail24.com : md Hasanuzzaman khan : The Bengali Online Newspaper in Tangail News Tangail
  2. aminulislamkobi95@gmail.com : Aminul islam kobi : Aminul islam kobi
  3. anowar183617@gmail.com : Anowar pasha : Anowar pasha
  4. smariful81@gmail.com : ArifulIslam : Ariful Islam
  5. arnobalamin1@gmail.com : arnob alamin : arnob alamin
  6. dms09bd@yahoo.com : dm.shamimsumon : dm shamim sumon
  7. kplithy@gmail.com : Lithy : Khorshida Parvin Lithy
  8. hasankhan0190@gmail.com : md hasanuzzaman : md hasanuzzaman Khan
  9. monirhasantng@gmail.com : MD. MONIR HASAN : MD. MONIR HASAN
  10. muslimuddin@gmail.com : MuslimUddin Ahmed : MuslimUddin Ahmed
  11. sayonsd4@gmail.com : Sahadev Sutradhar Sayon : Sahadev Sutradhar Sayon
  12. sheful05@gmail.com : sheful : Habibullah Sheful
কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে খাবারের প্রতি নজর দিন: মাহফুজুর রহমান - Amader Tangail 24
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৯:৪৫ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ সংবাদঃ-
দেলদুয়ারে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ, অপসারণ দাবিতে মানববন্ধন গোপালপুরে আগুনে পুড়ল ১১টি ঘর ও ৪টি গরু ঘাটাইলে এতিমের জমি দখল করে বিক্রি! বাসাইলে চুরি, মাদক ও ইভটিজিং এর বিরুদ্ধে মতবিনিময় সভা বাসাইল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠক শাজাহান সিরাজের ৮১ তম জন্মবার্ষিকী পালন মির্জাপুরে কিশোর দলের পাল্টাপাল্টি হামলায় তিনজন জখম সখিপুরে জাতীয় বিমা দিবস উপলক্ষে র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সখিপুরে বাবা হত্যার দায়ে অভিযুক্ত ছেলে গ্রেফতার মির্জাপুরে অমর একুশে বই মেলা শুরু বাসাইলে তিন দিন ব্যাপী একুশে বই মেলার উদ্ধোধন পাপ মোচনে বংশাই নদীতে হাজারো পুণ্যার্থীর স্নান ঢাকাস্থ সখিপুর উপজেলা সমিতির মিলনমেলা অনুষ্ঠিত গোপালপুরে ২০১ গম্বুজ মসজিদ চত্বরে পুলিশ বক্স স্থাপন টাঙ্গাইলে শ্রমিক নেতা মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণ সভা

কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে খাবারের প্রতি নজর দিন: মাহফুজুর রহমান

HM Maruf Hasan
  • প্রকাশ : সোমবার, ২৯ জুন, ২০২০
  • ৭৮৫ ভিউ

মানুষ কীভাবে সুস্থ থাকতে পারে এবং কোন উপায়ে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে, সেটি নিয়ে নানামুখী গবেষণা হয়েছে বিশ্বজুড়ে।

চিকিৎসক এবং পুষ্টিবিজ্ঞানীরা বলছেন, “শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী না হলে অল্প অসুস্থতাতেও মানুষ খুব সহজে দুর্বল হয়ে পড়ে এবং রোগের আক্রমণও জোরালো হয়।”

এক্ষেত্রে খাদ্যাভ্যাস এবং জীবন-যাপনের পদ্ধতি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে উল্লেখ করছেন চিকিৎসকরা।

মানুষ সচরাচর যে ধরণের খাবার খায়, সেগুলো হচ্ছে – শর্করা, প্রোটিন এবং ফ্যাট বা চর্বি জাতীয় খাবার। এ ধরণের খাবার শরীরের জন্য অবশ্যই প্রয়োজন। মানুষের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নির্ভর করে ভিটামিন এবং মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট-এর উপর।

কোভিডের হানায় পৃথিবীতে আমাদের জীবনধারণ ও দৈনন্দিন কাজেকর্মে অনেক পরির্তন  এনেছে, তবে শুধু  যে জীবনধারণ ও কাজেকর্মে পরির্তন  এনেছে এমনই নয়, পরিবর্তিত হয়েছে খাদ্যাভ্যাসের। স্বাদের কথা মাথায় রেখে শুধু যা খুশি তা খেলেই চলবেনা, খেতে হবে পুষ্ঠিসমৃদ্ব খাবার, শারিরিক ব্যায়াম করা ও নিয়ম মেনে সব কিছু করাও কিন্তু এইসময় খুব গুরুত্ব পুর্ণ । শুধু পুষ্ঠিসমৃদ্ব খাবার ও শারিরিক ব্যায়ামই একমাত্র পারে শরীরের রোগ ক্ষমতা বৃদ্বি করতে। শরীরের প্রতিটি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের কথা মাথায় রেখে খাবারের তালিকা করতে হবে, না হলে শরীরের দুর্বলতার সুযোগ নেবে সংক্রমণ। হৃদযন্ত্র, ফুসফুস, বৃক্ক, মস্তিস্ক, যকৃৎ-শ প্রতিটি অঙ্গেরই খেয়াল রাখতে হবে।  সুগার-প্রেশার-কোলেস্টেরল-ওজন, সবই রাখতে হবে  নিয়ন্ত্রনের মধ্যে। তা না হলে এদেরকে পুজি করে শরীরে  ক্ষমতা দেখাতে পারে কোভিড-১৯। খবারের অনিয়ম ও বেশি তৈলাক্ত খাবারের জন্য গ্যাস- বদহজমের মতো সাধারন সমস্যা থাকে, সে ক্ষেত্রে পুষ্টির অভাব হতে পারে। অপুষ্টির সঙ্গে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়ার সম্ভবনা আছে।

তাই এই সময় কিছু নতুন খাবারকে প্রতি দিনের খাবারের তালিকায় যোগ করতে হবে।

  • খাবার খাওয়ার নিয়ম-

নিয়ম করে খাবার খাওয়ার  প্রতি আমাদের সবারই একটু অনীহা আছে, আমাদের মাঝে অনেকেই আছে যারা কিনা সকাল বেলা বেশির ভাগ সময় না খেয়েই কাটিয়ে দেই। আগে এমনটা করলেও এখন সে সব না করাই ভাল, যতটা পারেন নিয়ম মেনে খাবার খান।

১. সকালে ঘুম থেকে উঠে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন হয়ে সকালে নাস্তা করে দিনটা শুরু করতে পারলে ভাল। খিদে পাক বা না পাক খেতে হবে। সকালে নাস্তা না করলে কিছু হবে না এমন ভাবনা বাদ দিতে হবে। এতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যেমন বাড়ে, ওজনও আয়ত্তে থাকে।

২. যতই খিদে পাক পেট কিছুটা খালি রেখে খাবার খেতে হবে। পানি পান করার পরিমাণ বাড়িয়ে দিতে হবে। পানির বোতল সাথেই রাখতে হবে।

৩. রাতের খাবার হালকা হলে ভাল। বিছানায় যাওয়ার কমপক্ষে দুই ঘণ্টা আগে খাওয়ার চেষ্টা করুন। রাতে  খাওয়ার পর একটু পায়চারি করুন।

৪. খাবার খাওয়ার আগে হাত  ভালভাবে পরিষ্কার করে ধুয়ে সময় নিয়ে ভাল করে চিবিয়ে মন দিয়ে খান। তাড়াহুড়া করে খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।  এভাবে খেলে হজম ভাল হয়। শরীরে খাবারের পুষ্টি ভাল ভাবে শোষিত হয় । রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে।

৫. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে এমন পুষ্টিকর খাবার বা ভেষজ নিয়মিত খান ।

৬. ওজন যাতে না বাড়ে সে দিকে খেয়াল রাখুন। নিয়মিত শারিরিক ব্যায়াম করুন। 

৭. অতিরিক্ত ডায়েট করা থেকে বিরত থাকুন।

  • খাবারের তালিকায় যে সব জিনিস যোগ করলে ভাল-

১. খালিপেটে সকালবেলা হলুদ দুধ খেতে পারেন। গরুর দুধে এক চামচ কাঁচা হলুদ বাটা, ১/২ চামচ দারচিনির গুঁড়ো, ১/৪ চামচ গোলমরিচের গুঁড়ো মিশিয়ে হলুদ দুধ বানান। সুগার না খেলে মধু মেশাতে পারেন। হলুদ দুধ খেয়ে আধঘণ্টা কিছু খাবেন না।

 

 

 

২.  সকালে এমন খাবার খান যাতে কোনও অস্বাস্থ্যকর উপাদান নেই। গম ও ছোলা  ভেজে গুঁড়ো করে তাতে ওটস ও বার্লি  মিশিয়ে দুধ বা পানি দিয়ে ফুটিয়ে ফল মিশিয়ে খেতে পারেন।

৩. দিনে কমপক্ষে তিনবার লেবু চা খান, সম্ভব হলে দারুচিনি , লবঙ্গ ও তেজপাতা দিয়ে পানি গরম করে আধা ঘণ্টা পর পর খেতে পারেন। এই মিক্সারকে চার পানি হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

৪. সকালে চা-এর বদলে আয়ুর্বেদিক ক্বাথ খেতে পারেন। তুলসি, পিপলি, আদা ও মধু দিয়ে বা তুলসি, আদার সঙ্গে গোলমরিচ, দারচিনি, কিশমিশ, মধু ও লেবুর রস দিয়ে ক্বাথ বানাতে পারেন। নিয়মিত খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যেমন বাড়বে, বাড়বে হজমশক্তিও।

৫. দুপুরে ভাতের সঙ্গে কাঁচা হলুদ ও গোলমরিচ বাটা খেতে পারেন। ডাল-সব্জির সঙ্গে লেবু খাওয়ার পরিমান বাড়িয়ে দিন, খাওয়ার পর কোনও টক ফল খেতে পারেন।

৬. কালজিরা ও মধু খেতে পারেন নিয়মিত।

৭. লেবু দিয়ে ধনেপাতা বা পুদিনা পাতার ভর্তা অথবা আমলকির রস খেতে পারেন।

৮. সব ধরনের মশলা ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে রান্নায় ব্যবহার করুন। যেমন, ধনিয়া, জিরা, হলুদ, গোলমরিচ, আদা, রসুন, মেথি, কালোজিরা ।

৯. এমন একটি মশলা বানিয়ে নিন যাতে ইমিউনিটি বাড়ে। এই মশলা বানাতে আপনি ৩ চামচ করে জিরা, ৩ চামচ ধনিয়া, ৬ চামচ মেথি ও এক চামচ গোলমরিচ ভেজে, গুঁড়ো করে নিন। তাতে মেশান এক চামচ আদার গুঁড়ো, ৬ চামচ হলুদ গুঁড়ো ও ১/৪ চামচ দারচিনির গুঁড়ো।  যে কোনও রান্নায় (সব্জি, ডাল, স্যুপ)  মিশ্রনটি ব্যবহার করার আগে এক চামচ ঘি অল্প গরম করে তাতে এক চামচ মশলা দিয়ে নেড়ে ব্যবহার করুন।

 

মানসিক চাপ কমান:
করোনাভাইরাস নিয়ে দুশ্চিন্তার যেন শেষ নেই। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে গিয়ে জীবনযাত্রায় বিঘ্নতা ও দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি মানসিক চাপের মাত্রা বৃদ্ধি করছে। কিন্তু এটা জানা জরুরি যে, অতিরিক্ত মানসিক চাপও শ্বাসতন্ত্রীয় অসুস্থতার প্রবণতা বৃদ্ধি করে। তাই মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণের টেকনিকসমূহ রপ্ত করুন, যেমন- ধ্যান, গভীর শ্বাসক্রিয়া ও প্রার্থনা। এসবকিছু ইমিউন সিস্টেমকে সবল রাখতে সহায়তা করবে।

 

ঘুমের অভ্যাস উন্নত করুন: 
সুস্থ ইমিউন সিস্টেম সংক্রমণকে তাড়াতে পারে। ঘুম-বঞ্চিত ইমিউন সিস্টেম কার্যকরভাবে কাজ করতে পারে না।

সুতরাং ঘুমের অভ্যাসের ওপর ফোকাস হচ্ছে ইমিউন সিস্টেমকে শক্তিশালী করার অন্যতম সহজ উপায়। প্রতিরাতে ছয় থেকে সাত ঘণ্টা ঘুমাতে পারলে ভালো। প্রতিদিন একই সময়ে বিছানায় যান ও একই সময়ে জেগে উঠুন। বিছানায় যাওয়ার পূর্বে স্ক্রিনের ব্যবহার, খাবার ও শরীরচর্চা পরিহার করুন। বিছানায় শুয়ে ফেসবুকের মতো সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।

 

 

 

এম ফার্ম
জৈষ্ঠ্য নির্বাহী কর্মকর্তা, মান নিয়ন্ত্রণ বিভাগ
পপুলার ফার্মাসিউটিক্যালস্ লিমিটেড, ঢাকা।

নিউজটি সোস্যালমিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ
© All rights reserved © 2021
Theme Customized BY LatestNews